কুষ্টিয়া গুরুকুলে “মৌলবাদের এবং চরমপন্থা প্রতিহত : শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

Seminar on Countering radicalization and extremism in Gurukul, Kushtia, 2016, Gurukul Bangladesh | উগ্রবাদ, মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ বিরোধী সেমিনার, গুরুকুল কুষ্টিয়া, ২০১৬ডিপার্টমেন্ট অব পলিটাক্যাল স্টাডিজ গুরুকুল এর আয়োজনে, “মৌলবাদের এবং চরমপন্থা প্রতিহত : শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে । ০৫/১১/১৬ তারিখে কুষ্টিয়া গুরুকুলের লালন সাঁই ক্যাম্পাসের সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার ঘোষ।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্স এর পরিচালক, জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার ইকবাল মাহমুদ। তার প্রবন্ধে তিনি বর্তমান ধর্মীয় জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের পিছনের ইতিহাস, সূত্র ও বর্তমানে বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরেন। তিনি ব্যাখ্যা করেন এমতাবস্থায় জঙ্গিবাদের কালো থাবা থেকে নিজেকে ও দেশকে রক্ষা করতে হলে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের করনীয় সম্পর্কে।

প্রধান আলোচক স্বপন কুমার ঘোষ বলেন – আমি ইসলামের ইতিহাসের ছাত্র। তাছাড়া পৃথিবীর প্রতিটি ধর্ম সম্পর্কে কমবেশি পড়েছি। আমি দেখেছি- পৃথিবীর কোন ধর্ম সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদকে সমর্থন করে না। উপরোক্ত আধুনিক রাষ্ট্রের রাষ্ট্রকাঠামো ও বিচারব্যবস্থার মধ্যে কোন ধর্মের ইতিহাসের দোহাই দিয়েই অন্ত্র হাতে তুলে নোর সুযোগ নেই। কিন্তু একটি বিশেষ শ্রেণী বিশ্বব্যাপী ইসলামের নামে, কোরআন ও মুসলিম মনিষীদের অতীত সিদ্ধান্তের অপ ব্যাখ্যা করে, রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির উদ্দেশ্যে সারা পৃথিবীতে সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের বিস্তার করেছে। উনিশ শতকে এই বিষবৃক্ষ রোপিত ও পরিপক্ব হয়েছে, ২০ শতক তার বিষফল পাচ্ছে। আমাদের প্রতিজন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে সচেতন হতে হবে যেন এই বিষ তাদের চোখ, কান, মন দিয়ে কোন ভাবে প্রবেশ না করে। একজন জঙ্গিবাদী শুধুমাত্র নিজেকেই শেষ করে দেয় না, সে তার পরিবারটাকেও আজীবনের জন্য অভিশপ্ত জীবন দিয়ে যায়।

সেমিনারে প্রবন্ধের উপরে আলোচনা করেন গুরুকুল প্রমুখ সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর, আলাউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক আব্দুল্লাহ আল মামুন। গুরুকুল প্রমুখ জানান, গুরুকুলের প্রতিটি ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় চরমপন্থার বিষাক্ত কালো থাবা থেকে দুরে রাখতে নিয়মিত এ ধরনের আয়োজন থাকছে।

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।